September 26, 2022, 10:08 pm

যেভাবে এক মিনিটের মধ্যে মেয়েদেরকে যৌন উত্তেজনায় পাগল করে দিবেন।

যেভাবে এক মিনিটের মধ্যে মেয়েদেরকে যৌন উত্তেজনায় পাগল করে দিবেন।

যেভাবে এক মিনিটের মধ্যে মেয়েদেরকে যৌন উত্তেজনায় পাগল করে দিবেন।

১ মিনিটেই যেভাবে মেয়েদেরকে যৌন উত্তেজনায় পাগল করে তুলবেন। মেয়েদে’র শরীরে এমন কিছু জায়গা আছে যেগুলো স্পর্শ করলে মেয়েরা অনেক বেশি টার্ন অন হয়ে পরে। কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ছেলেরা সেসব জায়গা’র প্রতি খেয়াল দেয় না।

আসুন আমরা জেনে নেই! মেয়েদে’র শরীরে ঘারের পিছন এটাই সবচেয়ে টার্নিং অন জায়গা। ছেলেরা এজায়গা’র উপর খুব অল্পই সময় দেয়। কিন্তু শুধু এখানে স্পর্শ করেও একজন নারীকে দ্রুত উত্তেজিত সম্ভব।

এক’জন মেয়ে যখন সামান্য টার্ন অন থাকে, তখন তার পেছ’ন দিকে চুল সরিয়ে হাত বুলিয়ে দেখুন। আস্তে আস্তে কিস করুন।কানে হালকা স্পর্শ, চুমু অনেক বেশি এরোসড করে দেয় মেয়েদে’র। কানের উপর আস্তে আস্তে নিঃশ্বাস ফেললে পাগল হয়ে যায় সে। হালকা কামড় দিতে পারেন কানে’র যে কোন জায়গায়। লিক করতে পারেন কানের চার পাশে যে কোন জায়গায়। কিন্তু কানের ছিদ্রে নয়, এটি মেয়েদে’র জন্যে একটা টার্ন অফ।

নারীকে দ্রুত উত্তেজিত করেত আসল জায়গা স্পর্শ না করেও তার আশে পাশে’র থাই এর নরম জায়গাগুলো স্পর্শ করেই তাকে হর্নি করে দিতে পারে’ন। হাত এবং মুখ কাজে লাগান, কিস করুন। কিন্তু আসল জায়গায় যাওয়ার আগে সরে আসুন, দেখবে’ন সে কি করে।

পিঠ, বিশেষ করে পিঠের নিচে, কোমড়ে’র দিকের অংশটাতে স্পর্শ ও আদর চায় মেয়েরা। মেরুদন্ড বরাবর চুমু দিতে দিতে নিচে নেমে যান, কিস করুন সে বিশেষ জায়গাটিতে। তার সেক্স করা’র মুড আরো বাড়বেই।কলার বোনঃ নারীকে দ্রুত উত্তেজিত করতে ব্রেস্টের দিকে যাওয়া’র আগে, তার গলার নিচে, কলার বোনে’র দিকে নজর দিন একটু। জিহবা দিয়ে সার্কেল করে লিক করুন। হালকা কামড় দিন। এতে সে বুঝবে আপনি কতটা চান আপনা’র সঙ্গিনীকে।

 

সহবাসের সময়, মেয়েরা কোথায় বেশি, আদর পেতে চায়।
নারী’র দাম্পত্যর সংস্কৃতিতে বোধ করে পুরুষের চেয়ে আলাদা। নারী’র শারীরিক(Physical)আগ্রহ , ইচ্ছা শারীরিক চরম আনন্দ ইত্যাদি প্রতিটি পর্বে পুরুষে’র চেয়ে স্বতন্ত্র অবস্থা’র সৃষ্টি করে। নারী’র সাথে পুরুষে’র দৈহিক মিলনে’র সময় না’রী উত্তেজিত হয়। এবং পাশপা’শি পুরুষে’র ও শারীরিক উত্তেজ’না (Excitement) আসে। পুরুষে’র স্পর্শের প্রথম থেকেই নারী’র ভেতরে শারীরিক উত্তেজনা’র সৃষ্টি হয়।

 

নারী’র শরীর কেপে উঠতে পারে যা খুব সামান্য সময় ধরে অনুভূত হয়। শারীরিক মিলনের(Sex) সময় নারী’র দেহ এবং পুরুষে’র দেহের প্রধান যে পরিবর্তন হয় তাহলো উভয়েরই শারীরিক চাপ বৃদ্ধি পায়। রক্তে’র চাপ বাড়ে , শ্বাস প্রশ্বা’স দ্রুত হয় এবং উভয়েই চূড়ান্ত আনন্দে’র জন্যে অস্থির হয়ে উঠে।

শারীরিক মিলনে’র ব্যাপারে বা দাম্পত্যর ব্যাপারে সব নারীরেই ইচ্ছাএকই রকম হয় না। এটিও আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। কোনো’ কোনো নারী অত্যাধিক দাম্পত্য কাতর। আবার কোনো কোনো পুরুষে’র শারীরিক(Physical) ইচ্ছা থাকে বেশি অর্থাত্‍ দাম্পত্যর ব্যাপারে তাদের আগ্রহ এবং শারীরিক মলনে’র ইচ্ছা থাকে ব্যাপক।

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2022 BangaliTimesofficel
Design & Developed BY ThemesBazar.Com